• Youtube
  • google+
  • twitter
  • facebook

চিকিৎসা খাত: অপরাধীদের শাস্তির পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্তদের সুরক্ষা ও ক্ষতিপূরণের দায়িত্ব রাষ্ট্রের

অ্যাড. মো. কাওসার হোসাইন ৬:১৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২০

যেকোন রাষ্ট্রের স্বাস্থ্যসেবা একটি গুরুত্বপূর্ণ খাত। মানুষ অসুস্থ্য হলে ভরসা ও বিশ্বাস নিয়ে সেবা পাওয়ার জন্য চিকিৎসালয়, চিকিৎসক বা চিকিৎসা সংশ্লিষ্টদের কাছে যায়। এটি একটি সেবামূলক খাত হওয়ায় চিকিৎসা সেবা প্রদানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলের উচিত সেবামূলক মানসিকতা নিয়ে অসুস্থ্য রোগীদের যথাযথ সেবা প্রদান করা।

কারো কারো মধ্যে এমন মানসিকতা এবং দায়িত্বশীল ভূমিকা দেখাও যায়। কিন্তু প্রায়ই দেখা যায়, মানুষের অসুস্থ্যতার দুর্বলতাকে পুঁজি করে চিকিৎসা সেবা প্রদানের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা অধিক মুনাফা লাভের ঘৃণ্য ও হীন কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে।

অতিরিক্ত ফি আদায়, চিকিৎসা অবহেলায় মৃত্যুর ঘটনা, রোগীর স্বজনদের মারধর, দুর্ব্যবহার, সংবাদকর্মীদের মারধর, লাঞ্ছিত করা, লাইসেন্স ছাড়া বা নবায়ন না করে হাসপাতাল বা ক্লিনিক চালানো, পরিবেশগত ছাড়পত্র না থাকা বা চিকিৎসার উপযুক্ত পরিবেশের অভাব, বিধি মোতাবেক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকা, ভুয়া মেডিকেল রিপোর্ট প্রদান, কর্মস্থলে ডাক্তারদের অনুপস্থিতি, অনুমোদনহীন বা মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি, ভুল চিকিৎসাসহ নানাবিধ অনিয়ম ও দুর্নীতির অসংখ্য ঘটনা গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে আমরা নিয়মিত দেখি বা জানতে পারি।

এ জাতীয় অন্যায় বা অনিয়মের বিষয়টি যখনই সামনে চলে আসে, তখন কখনো চিকিৎসা সেবা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের মালিক, কখনো চিকিৎসক, কখনো সংশ্লিষ্ট কর্মচারী বা অন্যান্যদের অন্যায়-অপরাধ, খামখেয়ালিপনা, লোভী মানসিকতা কিংবা অমানবিক কর্মকাণ্ড প্রকাশিত হয়। তখন সবার মাঝে উক্ত বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা বা হইচই শুরু হয়ে যায়। চিকিৎসা খাতের এ জাতীয় অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা, অপরাধ বা দুর্নীতি যাদের নিয়ন্ত্রণ বা প্রতিরোধ করা দরকার তারাও তখন তৎপর হয়ে উঠে।

যদিও তারা নিয়মিত চিকিৎসা খাত সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি বিধি মোতাবেক তদারকি, নিয়ন্ত্রণ ও যথাসময়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করলে এ ধরণের ঘটনা বার বার সংগঠিত হওয়ার কথা না। পাশাপাশি চিকিৎসা খাতের অনিয়ম, দুর্নীতি বা অপরাধ প্রকাশিত হবার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও বিচার বিভাগের সক্রিয় ভূমিকায় এমন অনিয়ম বা অপরাধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অনেক অপরাধীর শাস্তিও হয়। কিন্তু একটি বিষয় অনেক সময়ই গুরুত্ব পায় না যে, স্বাস্থ্যসেবা খাতে এমন অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা, অপরাধ বা দুর্নীতির জন্য সরল বিশ্বাসে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা বহু রোগী ও তার স্বজনদের জীবন, শরীর, অর্থ কিংবা নানাবিধ বিষয় চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ও হয়রানির শিকার হয়।

তাদের মধ্যে কতিপয় ভিকটিম পরিবেশ, পরিস্থিতি ও যোগ্যতা অনুযায়ী কখনো কখনো ক্ষতিপূরণ বা অন্য কোন আইনানুগ প্রতিকার পেলেও বেশীরভাগ ক্ষতিগ্রস্ত রোগী বা স্বজনরা বিভিন্ন কারণে সুরক্ষা, ক্ষতিপূরণ বা প্রতিকার পায় না। কিন্তু চিকিৎসা সেবা নিতে আসা কোন মানুষ যাতে ক্ষতিগ্রস্থ না হয় তার সুরক্ষা এবং কোন ক্রমে ক্ষতিগ্রস্থ হলে তার ক্ষতিপূরণ ও যথাযথ প্রতিকারের দায়িত্ব রাষ্ট্রের। এ জন্য নানাবিধ বিষয়াদি বিশ্লেষণ ও বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে চিকিৎসা খাত সংশ্লিষ্ট আইনকে  যুগোপযোগীকরণ ও যথাযথ প্রয়োগের ব্যবস্থা গ্রহণ এবং এই খাত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সক্ষমতা বৃদ্ধি করে তাদের কর্মকাণ্ডেরর স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতায় আনয়ন অতীব জরুরী।

লেখক : সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি, আইনগ্রন্থ প্রণেতা ও কলামিস্ট।

লাইভ

rss goolge-plus twitter facebook
Design & Developed By:

প্রকাশক : গোলাম মাওলা শান্ত
মোবাইলঃ ০১৭১৪৭৮৫০১৭, ০১৭১১৫৭৪৪১৫
অফিসঃ ৩৮৩/২/এ, বনশ্রী রোড, পশ্চিম রামপুরা, রামপুরা, ঢাকা-১২১৭

ই-মেইল: jugerbarta.news@gmail.com,

সম্পাদক:  এ্যাড. কাওসার হোসাইন
নির্বাহী সম্পাদক: খান মাইনউদ্দিন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: তানজিল হাসান খান
বার্তা সম্পাদক: এইচ.এম বশির

টপ